November 3, 2019

নারায়ণগঞ্জের হাজীগঞ্জ দুর্গকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে -সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী কে এম খালিদ

হাজীগঞ্জ দুর্গ পরিদর্শনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী কে এম খালিদ।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জ শহরের হাজীগঞ্জ এলাকায় মোঘল আমলের ঐতিহাসিক স্থাপত্য নিদর্শন হাজীগঞ্জ দুর্গকে সৌন্দর্য্য বর্ধনের মাধ্যমে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী কে এম খালিদ। রবিবার সকালে দুর্গ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী, জেলা প্রশাসক মোঃ জসীম উদ্দিন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক ও সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এ এফ এম এহতেশামুল হকসহ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী জানান, আদালতের নির্দেশে গেলো সপ্তাহে উচ্ছেদের মাধ্যমে দুর্গের আশপাশের অবৈধ দখল থেকে অবমুক্ত হওয়া কয়েক একর জমিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় বাগান নির্মাণ ও আলোকসজ্জসহ নানাভাবে সৌন্দর্য বর্ধন করা হবে। পরে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এটিকে সংস্কারের মাধ্যমে দর্শনীয় স্থানের উপযোগী করে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলে সর্বসাধারণের বিনোদনের জন্য উন্মুক্ত করে দেবে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী জানান, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশে বন্যাকবলিত এলাকায় উৎপাদিত বিপুল পরিমাণ রপ্তানিযোগ্য পাট সংরক্ষণের জন্য দুর্গের আশপাশের জমি তৎকালীন নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা থেকে পাট মন্ত্রণালয় লিজ নিয়ে বেশ কয়েকটি গুদাম নির্মাণ করেছিল। পরবর্তীতে গুদামগুলোসহ পুরো জমিটি স্থানীয় প্রভাবশালীদের দখলে চলে যায়। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের এই জায়গা অবৈধভাবে দখল করে সেখানে গড়ে ওঠে ছোট-বড় বিভিন্ন আকারের মিল কারখানা ও গুদামঘর।

আইভী জানান, বর্তমানে পাট মন্ত্রণালয়ের এই জায়গার প্রয়োজন না থাকায় সিটি কর্পোরেশন এই ভূমি ফেরত নেওয়ার জন্য উচ্চ আদালতে মামলা করলে সিটি কর্পোরেশনের অনুকূলে রায় আসে। অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে জমিটি উদ্ধার করতে সিটি করপোরেশনকে নির্দেশ দেন উচ্চ আদালত। সে আলোকে জমিটি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান মেয়র আইভী।

উল্লেখ্য, গত ২৪ অক্টোবর দুর্গটির আশপাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা প্রায় অর্ধশত স্থাপনা উচ্ছেদ করে জমিটি যৌথভাবে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসন ও প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *