November 5, 2019

দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটে আগত অভিযোগের প্রেক্ষিতে দেশব্যাপী আজ এনফোর্সমেন্ট টিমের অভিযান।

অভিযান নং – ০১. জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন বাবদ ঘুষ দাবি ও হয়রানির অভিযোগে রাজধানীর আগারগাঁওস্থ নির্বাচন কমিশনে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (টোল ফ্রি হটলাইন- ১০৬) এক ভুক্তভোগী অভিযোগ জানান, তিনি তাঁর জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের জন্য ২০১৮ সালের ১৭ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন করেন, কিন্তু এক বছর অতিক্রান্ত হলেও তাঁর পরিচয়পত্র প্রদান করা হয়নি, বরং বিভিন্ন দালাল আকারে-ইঙ্গিতে তাঁর নিকট টাকা দাবি করেছেন। তৎপ্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রাউফুল ইসলাম ও উপসহকারী পরিচালক আবুল কালাম আজাদ এর সমন্বয়ে গঠিত এনফোর্সমেন্ট টিম আজ এ অভিযান পরিচালনা করে। সরেজমিন অভিযানকালে তথ্যাবলি সংগ্রহ ও বিশ্লেষণপূর্বক দুদক টিম জানতে পারে, অভিযোগকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের সমর্থনে তথ্যাবলি যাচাইয়ের জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রধান কার্যালয় হতে আবেদনপত্রটি ২৩ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে নির্বাচন কমিশন, নরসিংদী অফিসে প্রেরণ করা হয়, কিন্তু নরসিংদী অফিস হতে দীর্ঘ ৯ মাস পর (২০১৯ সালের জুলাই মাসে) প্রধান কার্যালয়ে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে অভিযোগকারীর আবেদনপত্রটি প্রক্রিয়াকরণের সর্বশেষ পর্যায়ে রয়েছে এবং নির্বাচন কমিশন অফিসের সংশ্লিষ্ট উইং হতে অবিলম্বে আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্রটি বিতরণের ব্যবস্থা করা হবে মর্মে দুদক টিমকে নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়। সার্বিক বিবেচনায় নরসিংদী অফিসের অবহেলার কারণেই অভিযোগকারীর এরুপ ভোগান্তি হয়েছে মর্মে দুদক টিমের নিকট প্রতীয়মান হয়। এর পেছনে দুর্নীতি হয়েছে কিনা তা বিশ্লেষণপূর্বক কমিশনে বিস্তারিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে অভিযানকারী টিম।

অভিযান নং -০২. বন বিভাগের অসাধু কর্মচারির সাথে যোগসাজশে অবৈধভাবে রাস্তার পাশের গাছ বিক্রয়ের অভিযোগে ঝালকাঠি-তে অপর একটি অভিযান পরিচালিত হয়েছে। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে অভিযোগ আসে, ঝালকাঠি জেলা পরিষদের এক অফিস সহকারীর সাথে যোগসাজশ করে কতিপয় স্থানীয় ব্যক্তি নলছিটি বাসস্ট্যান্ড হতে দপদপিয়া পর্যন্ত রাস্তার পার্শ্ববর্তী ৩০-৪০টি গাছ বিক্রয় করেছেন। তৎপ্রেক্ষিতে সমন্বিত জেলা কার্যালয়, বরিশাল এর উপপরিচালক দেবব্রত মন্ডল এর নেতৃত্বে আজ এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানকালে রাস্তার পাশের বেশকিছু গ্যাস উত্তোলনের সত্যতা পায় দুদক টিম। এ অনিয়মে জেলা পরিষদের কর্মচারীগণ জড়িত রয়েছে কিনা তা বিস্তারিত অনুসন্ধানপূর্বক কমিশনে প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে অভিযান পরিচালনাকারী টিম।

অভিযান অং ০৩,০৪,০৫ ও ০৬. এছাড়াও মৌলভীবাজারে স্থানীয় জনসাধারণের নিকট বিদ্যুৎ সেবা প্রদানে অবৈধভাবে অর্থ আদায়ের অভিযোগে, চাঁপাই নবাবগঞ্জে স্থানীয় প্রভাবশালীগণ কর্তৃক মহানন্দা নদী দখলপূর্বক বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগে, রংপুরের মিঠাপুকুরে বয়স্ক ভাতা প্রদানে ঘুষ দাবী ও গ্রাহক হয়রানির অভিযোগে এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীর সংখ্যা বেশি দেখিয়ে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে যথাক্রমে প্রধান কার্যালয়, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, হবিগঞ্জ, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, রাজশাহী ও সমন্বিত জেলা কার্যালয়, রংপুর হতে ৪টি পৃথক অভিযান পরিচালিত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *