Breaking News
October 22, 2019 - যোগ্যতা ধরে রাখতে ব্যর্থ হলে এমপিও বাতিল : শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।
October 22, 2019 - প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘চলাফেরার সময় পথচারীদের যেমন দায়িত্ব আছে, তেমনি চালকদেরও দায়িত্ব আছে।
October 20, 2019 - যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
October 20, 2019 - মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। কেউ অন্যায় করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
October 20, 2019 - ওমর ফারুককে ছাড়াই গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যুবলীগের বৈঠক শুরু।
October 20, 2019 - ‘জনগণ ভোট দিতে পারেনি’ মেননের বক্তব্যের জবাব দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
October 20, 2019 - যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস বিষয়ে বৈঠকে আজ বিকেলে বসছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
October 19, 2019 - আওয়ামী লীগের সম্মেলনের ব্যাপারে কোনো আপস নেই, এখানে পরিবর্তন হবে, নতুন মুখ আসবে। -সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
October 19, 2019 - যেখানে অনিয়ম, দুর্নীতি হচ্ছে সেখানেই অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এসব কথা বলেছেন।
October 19, 2019 - জঙ্গিবাদ নির্মূলে কাজ চললেও ঝুঁকি রয়ে গেছে: বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম।
October 19, 2019 - অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
October 18, 2019 - ভুল বোঝাবুঝির কারণে সীমান্তে গুলিবিনিময়, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
October 17, 2019 - মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আগামী রবিবার যুবলীগের সম্মেলনের বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিবেন।

সারা বাংলাদেশের সকল মসজিদে শুক্রবারের জুমার খুৎবায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সম্পর্কে বলুন

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ ধর্মের নামে যারা সন্ত্রাস করে, হত্যা করে তারা মানুষের ঘৃণা-অভিশাপ ছাড়া কিছু পায় না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে আগামী জুমার খুতবায় একযোগে সারা দেশের সব মসজিদে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কোরআন-হাদিসের আলোকে আলোচনা করতে ইমামদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। ধর্মের নামে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জানি না যারা এ ধরনের হত্যাকাণ্ড চালায় তারা কি পায়, কি লাভ তাদের হয়। মানুষের ঘৃণা ছাড়া, অভিশাপ ছাড়া আর কিছু তারা পায় না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ইসলাম ধর্মের নাম নিয়ে যারা সন্ত্রাস চালায়, জঙ্গিবাদ চালায় তাদের কথাও বলবো। তারা এই পবিত্র ধর্মটাকে কলুষিত করছে, পবিত্র ধর্মের বদনাম করছে বিশ্বব্যাপী। তারা ইসলামের কোনো ভালো কাজ করছে না। তারা আসলে ইসলাম ধর্মটাকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ইসলাম ধর্মের প্রচণ্ড  ক্ষতি করে দিচ্ছে। যে ধর্ম সবচেয়ে মানবতার ধর্ম, যে ধর্ম সবচেয়ে শান্তির ধর্ম, সেই ধর্মের নামে তারা জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে। এ ধরনের কাজে যারা জড়িত তাদের বিরত থাকতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেই কারণে আমি সব অভিভাবক, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, বাংলাদেশের জনগণ ও মসজিদের ইমাম, ধর্মীয় শিক্ষাগুরু অন্য ধর্মাবলম্বি যারা যার যার আওতায় শিশু-কিশোর-যুবক যারা আছে বা ছাত্র যারা আছে, শিক্ষক যারা আছে- যদি কারো মধ্যে এ ধরনের প্রবণতা দেখা দেয় সম্মিলিতভাবে তা প্রতিরোধ করার আহ্বান জানাচ্ছি। শুক্রবার জুমার সালাতের খুতবায় কোরআন-হাদিসের আলোকে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আলোচনা রাখতে ইমামদের আহ্বান জানানোর পাশাপাশি সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কাসহ সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ও আহতদের জন্য দোয়া করার অনুরোধ করেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, আগামী শুক্রবার আমি চাই প্রত্যেক মসজিদে জায়ান চৌধুরী, গত কয়েকদিন আগে নিউজিল্যান্ডে মসজিদের ভেতর ঢুকে আমাদের অনেক মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছে। সেখানে থাকা আমাদের বাংলাদেশি, শ্রীলঙ্কার ঘটনানহ পর পর যে ঘটনাগুলো ঘটেছে প্রত্যেকটা মসজিদে যেন তাদের জন্য দোয়া কামনা করা হয়। দোয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের যারা মসজিদে নামাজ পড়াবেন আমাদের ইমাম যারা আছেন- তাদের আমার অনুরোধ থাকবে আপনারা দয়া করে কথাগুলো বলবেন- এই জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এটা যে মানবতার বিরুদ্ধে, এর সঙ্গে কোনো ধর্মের সংযোগ নেই। জঙ্গিবাদে যারা সম্পৃক্ত হয় তারা জঙ্গি, তাদের ধর্ম নেই, দেশ নেই, কোনো কিছু নেই। জঙ্গিবাদ যে ইসলাম ধর্মের জন্য ক্ষতিকারক, ইসলাম ও আমাদের নবী করিম (সঃ) তিনি সব সময় শান্তির কথা বলে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বিচারের দায়িত্ব কখনো মানুষকে দেননি। সেই দায়িত্ব কিন্তু আল্লাহর হাতে। আমরা যারা কোরআন শরিফ পড়ি সেখানে আমরা পাই- যে বিচার করবেন আল্লাহ রাব্বুল আলামিন, তাহলে ধর্মের নামে মানুষ খুন করা কেন ? যারা বিপথে চলে গেছে তারা যেন এর থেকে বিরত হয়। সারা বাংলাদেশে প্রত্যেক মসজিদে জুমায় যে খুতবা হয়, নিশ্চয়ই সেখানে আপনারা কথা বলে ইসলাম যে শান্তির ধর্ম, এ কথাটা ভালোভাবে মানুষের কাছে তুলে ধরবেন। অনুষ্ঠানে গণভবন প্রান্তে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সঞ্চালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান।

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *