September 16, 2021, 9:52 am

News Headline :
ভালুকায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের জানাযা সম্পন্ন পটুয়াখালীতে ১৮৪০ পিচ ইয়াবাসহ মা-ছেলেকে গ্রেফতার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। সিভিল সার্জনের খামখেয়ালীপনায় দুর্ভোগে দুমকি উপজেলাবাসী। যশোরে ৫টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধারসহ আন্তঃজেলা চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে বাংলাদেশি রপ্তানি বাণিজ্য ব্যাহত হচ্ছে। পটুয়াখালীতে শহীদ আলাউদ্দিন সেতু নামকরণের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। লেবুখালী ফেরিঘাটে হকারদের পুনবার্সনে জন্য মানববন্ধন ভালুকায় শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়ন কমিটির মতবিনিময় সভা অনষ্ঠিত গ্রামীণ অর্থনৈতিক উন্নয়নের মধ্যে রয়েছে দেশের প্রকৃত উন্নয়ন। -কৃষিমন্ত্রী শার্শা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের সেই নৈশ্য প্রহরী রুস্তম আলী এবার তদন্তের বেড়াজালে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ ও লোডশেডিং বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। যশোর সদর উপজেলার উপ নির্বাচনে নৌকা প্রতিক পেলেন মোস্তফা ফরিদ সেনা অভিযানে একে-৪৭ অস্ত্রসহ গুলাবারুদ উদ্ধার চকরিয়ায় তিনজন অস্ত্রধারী গ্রেফতার। ভালুকায় আওয়ামী লীগ সভাপতির উপর সন্ত্রাসী হামলা পটুয়াখালীতে জেলা যুবলীগের বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত। ভালুকায় স্মার্ট কার্ড বিতরণের উদ্বোধন করলেন এমপি ধনু যশোরে সাংবাদিকতার কার্ড দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরী ধর্ষন ও ভিডিও ধারণ! অতঃপর গ্রেফতার-২ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর বানিজ্যসহ নানা দূর্নীতির মূল হোতা বেনাপোলের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা সাঈদ মোল্যা এবার তদবির মিশনে! র‌্যাব-৮ কর্তৃক বরগুনা জেলার আমতলীতে বিশেষ মোবাইল কোর্টে ভেজাল বিরোধী অভিযানে ৭ প্রতিষ্ঠানে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা। একজন কথিত নেত্রী বিউটি বেগমের বেনাপোল পৌর এলাকায় সরকারি ত্রাণ বাণিজ্য! পটুয়াখালীর দক্ষিণ অঞ্চলের ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত, বনাঞ্চল অভয়ারন্য সোনারচর’তুমি কার? পর্ব -১! সিনহা পানি চাইলেও গলায় পা চেপে মৃত্যু নিশ্চিত করেন প্রদীপ আদালতে কামাল হোসেনের স্বীকারোক্তি। কক্সবাজারে বিয়ের গাড়ী থেকে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট। পটুয়াখালীর ছোট বিঘাই ইউপি চেয়ারম্যান আলোচিত মামলায় ফের জেল হাজতে। যশোর বিআরটিএ অফিস ও পাসপোর্ট অফিসের আশ পাশে অভিযান চালিয়ে ৭ জনকে আটক। ভালুকায় রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাইভেটকারের ধাক্বায় ব্যবসায়ী নিহত বেনাপোলের আবাসিক হোটেল হতে স্ত্রী ও সন্তান হত্যা মামলার পলাতক আসাসী গ্রেফতার। বাসাইলের বাসুলিয়ায় ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচে জনতার ঢল দেলদুয়ারে ধাক্কা দিয়েই উল্টে গেলো ট্রাক, চালক-সহকারী নিহত

স্বপ্নের মেট্রোরেলের প্রথম নমুনা কোচ ঢাকায়।

স্বপ্নের মেট্রোরেলের প্রথম নমুনা কোচ ঢাকায়।

উত্তরার দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেলের ডিপোর পাশে ভিজিটর সেন্টার নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এমআরটি তথ্য ও প্রদর্শন কেন্দ্রের ভেতরেই রাখা হবে নমুনা ট্রেনটি। সেখানেই দর্শনার্থীদের টিকিট কাটা, ট্রেনে চড়া, দাঁড়ানো, ট্রেন থেকে নামা- এসব বিষয়ে ধারণা দেওয়া হবে।

রাজধানীবাসীর স্বপ্নের মেট্রোরেলের প্রথম নমুনা কোচ ঢাকায় পৌঁছেছে। উত্তরার দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেলের ডিপোতে কনটেইনার থেকে বের করা হয়েছে কোচ। এই কোচ দিয়েই মানুষকে মেট্রোরেলে চড়ানো শেখানো হবে। তবে নমুনা কোচ হওয়ায় মূল পরিবহন বহরে এটি যুক্ত হবে না।

প্রদর্শনীর জন্য কোচটি আগামী মাস থেকেই উন্মুক্ত করা হবে। আর যাত্রীবাহী মেট্রোরেলের মূল কোচগুলো ১৫ জুন বাংলাদেশে এসে পৌঁছাবে বলে জানান ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক।

তিনি বলেন, ‘গত একবছর ধরে জাপানে এগুলো তৈরি করা হয়েছে। দেশে আসার পর এগুলো অপারেশন কন্ট্রোল সেন্টারের (ওসিসি) সঙ্গে মিলে চলতে পারছে কিনা তার জন্য ট্রায়াল রান দেওয়া হবে।’

এমএএন ছিদ্দিক বলেন, ‘কোচটি জাপানের মিৎসুবিশি ও কাওয়াসাকি থেকে তৈরি করে আনা হয়েছে। এই কোচ শুধু প্রদর্শন করা হবে, যুক্ত হবে না যাত্রী পরিবহন বহরে। মূল কোচগুলো যে উপাদান দিয়ে যেভাবে তৈরি করা হবে এটিও সেভাবেই তৈরি হয়েছে। উত্তরায় মেট্রোরেলের যে তথ্যকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে সেখানে এটি সাধারণ মানুষের দেখার ও শেখার জন্য প্রদর্শিত হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘উত্তরার দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেলের ডিপোর পাশে ভিজিটর সেন্টার নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এমআরটি তথ্য ও প্রদর্শন কেন্দ্রের ভেতরেই রাখা হবে নমুনা ট্রেনটি। সেখানেই দর্শনার্থীদের টিকিট কাটা, ট্রেনে চড়া, দাঁড়ানো, ট্রেন থেকে নামা- এসব বিষয়ে ধারণা দেওয়া হবে।’

২০২১ সালে বিজয়ের মাসে রাজধানীর মানুষ প্রথম মেট্রোরেলে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করেন ডিএমটিসিএলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর। তিনি বলেন, ‘সেই লক্ষ্যমাত্রা মাথায় রেখেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। দেশে আসা মেট্রোরেল ট্রেন সেট জাতীয় পতাকার রঙে সাজানো থাকবে।’

মেট্রোরেলের প্রতি র‍্যাকে ১ হাজার ৭৩৮ জন যাত্রীর পরিবহন করবে। তবে বেশিরভাগ যাত্রীকে দাঁড়িয়ে যেতে হবে। দাঁড়ানোর জন্য সুব্যবস্থা থাকবে ট্রেনের ভেতর। প্রতিটি কোচের দু’দিকে চারটি দরজা থাকবে। ট্রেনে সিটের ধরন হবে লম্বালম্বি এবং প্রতিটি ট্রেনে থাকবে দু’টি হুইলচেয়ার পাশাপাশি রাখার ব্যবস্থা। প্রতিটি ট্রেনের ছয়টি কোচের মধ্যে একটি কোচ শুধু নারীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




All Rights Reserved: Duronto Sotter Sondhane (Dusos)
Design by Raytahost.com