April 21, 2021, 1:24 am

News Headline :
মহান আল্লাহ ‘র ১ টি জাতনাম “আল্লাহ” এবং ৯৮ টি গুন নাম ! ( বাংলা উচ্চারণ ও অর্থ সহ) হেফাজতের আন্দোলনে কওমি মাদরাসার শিক্ষার্থীরা আর অংশ নেবেন না চলমান সর্বাত্মক লকডাউনের মধ্যে জমে উঠেছে শার্শা সাতমাইলে গরুর হাট নেই কোনো নজরদারি। জেলা প্রশাসকের দেওয়া সুরক্ষা সামগ্রী নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ এর পক্ষ থেকে জনগণের মধ্যে বিতরণ ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করায় গ্রেপ্তার। ভালুকায় দুর্বৃত্তদের হামলায় ব্যবসায়ী নিহত। ফেসবুকের মাধ্যমে অসহায় পরিবারের পাশে মামুন ভালুকায় জনসাধারণের মাঝে ইউপি নির্বাচনের প্রার্থী মাইদুল এর মাস্ক বিতরন। টাঙ্গাইলে অনুমোদিহীন ঔষুধ কোম্পানীকে ১ লাখ টাকা জরিমানা টেকনাফের ফালংখালীতে ৫০০০ পিস ইয়াবা সহ ১ মাদক কারবারি গ্রেফতার। বান্দরবন পার্বত্য জেলার থানছি থেকে আফিম সহ একজনকে গ্রেফতার। দুমকিতে ওপেন হাউজ ডে’র ব্যনারে নির্বাচনি সভা যশোরে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ১০টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার আটক- ৬ নড়াইল জেলা পুলিশের আয়োজনে বছরপূর্তি উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল দুমকিতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত-১, আটক ১। চট্টগ্রামের সাতকানিয়া থেকে ৩৮,৬৫০ পিস ইয়াবা সহ দুইজন গ্রেফতার ও ট্রাক জব্দ। দুমকিতে ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি,স্লাইন সংকট, চরম ভোগান্তিতে রোগী, অব্যাবস্হাপনার অভিযোগ দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুই ডাক্তার মানবতার সেবক টাঙ্গগাইলে পুলিশের চাহিদা পুরন করতে না পারায় শতাধিক ধান কাটা শ্রমিককে সারারাত আটকে রাখার অভিযোগ টাঙ্গাইলে নতুন করে আক্রান্ত ৪৩ জন, এ পর্যন্ত মৃত্যুবরন করেছে ৭০ জন টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাইক আরোহী নিহত টাঙ্গগাইলের সখিপুরে ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষে আহত ৯, পাল্টাপাল্টি মামলায় গ্রেপ্তার ২ টাঙ্গাইলে পরকিয়া প্রেমের জেরে যুবক আটক, এলাকায় তোলপাড়! তথাকতিত ধর্ম বাণিজ্যকারীদের সামাজিকভাবে বয়কটকরা সময়ের দাবি। সম্পাদকীয় ছাত্রীকে অশ্লীল ভিডিও ধারন করে ব্লেকমেইল করত লম্পট শিক্ষক, অতঃপর র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার। গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরোধ, আটক দুই টাঙ্গাইলে ট্রাকে-ট্রাকে ধাক্কা, নিহত ৩ ভালুকায় নিজ ঘর থেকে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের হাতে গাঁজা সহ যুবক আটক কক্সবাজার শহরের কলাতলী থেকে একটি এলজি ও ১ রাউন্ড কার্তুজসহ একজনকে গ্রেফতার।

চেক ডিজঅনার হলেই সাজা হবে না চেকদাতার। -সুপ্রিম কোর্টের

চেক ডিজঅনার হলেই সাজা হবে না চেকদাতার। -সুপ্রিম কোর্টের

চেকদাতা ও গ্রহীতার মধ্যে লেনদেন সম্পর্কিত কোনও বৈধ চুক্তি প্রমাণ করতে না পারলেও এখন থেকে চেক ডিজঅনার হলেই সাজা হবে না মর্মে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়েছে।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বিচারপতিদের স্বাক্ষরের পর বুধবার ওই রায়ের অনুলিপি প্রকাশিত হয়।

এর আগে ২০১৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি এক আপিল আবেদন নিষ্পত্তি করে এ রায় ঘোষণা করেন আপিল বিভাগ।

চেক ডিজঅনার হলেই এর আগে চেকদাতাকে সাজা দেওয়া হতো। চেকমূলে চেকগ্রহীতার টাকা পাওয়ার কোনও কারণ আছে কিনা, সেটি তেমন একটা দেখা হতো না। কিন্তু এখন থেকে চেকগ্রহীতাকে প্রমাণ করতে হবে যে, চেকদাতা ও চেকগ্রহীতার মধ্যে লেনদেন সম্পর্কিত কোনও বৈধ চুক্তি ছিল। তাই চেক প্রাপ্তির বৈধ কোনও কারণ প্রমাণ করতে না পারলে এখন আর চেকদাতার সাজা হবে না।

প্রসঙ্গত, জাতীয় সংসদের সাবেক স্পিকার প্রয়াত হুমায়ূন রশিদ চৌধুরীর ছোট ভাই, সাবেক কূটনীতিক কায়সার রশিদ চৌধুরীর স্ত্রী (মৃত) সামছি খানমের মালিকানাধীন নর্থ গুলশানের ৩০ কাঠা জমি ১৯৭৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর সম্পাদিত ইজারা চুক্তি মূলে আমেরিকান দূতাবাসকে ১১০ বছরের জন্য ইজারা দেওয়া হয়। যেহেতু ওই ইজারা চুক্তিটি নিবন্ধন (রেজিস্ট্রি) করা হয়নি এবং বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহে মৃত সামছি খানমের উত্তরাধিকারগণ- ইমরান রশিদ চৌধুরী, পারভেজ রশিদ চৌধুরী এবং জিনাত রশিদ চৌধুরী জমিটি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন।

বিষয়টি জানতে পেরে আবুল কাহের শাহিন নামের এক ব্যক্তি ইমরান রশিদ চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। জমিটির বর্তমান বাজারমূল্য তথা ১৫০ কোটি টাকায় কিনতে আগ্রহী ক্রেতা রয়েছে এবং তিনি তা বিক্রি করে দিতে পারবেন বলে জানান।

ইমরান রশিদ চৌধুরী ওই আশ্বাসের ভিত্তিতে ২০১২ সালের ১৩ মার্চ শাহিনের সঙ্গে একটি সমঝোতা চুক্তি করেন। এই চুক্তির শর্তানুযায়ী ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজারমূল্যে জমিটি বিক্রি করে দেবেন এবং তার জন্য শাহিন মধ্যস্থতাকারী হিসেবে ১৩ শতাংশ টাকা পাবেন। তখন ইমরান রশিদ চৌধুরী পরবর্তী তারিখ উল্লেখ করে ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকার চারটি চেক আবুল কাহের শাহিনের নামে ইস্যু করেন। কিন্তু ৯০ দিন পার হওয়ার পরও শাহিন বর্তমান বাজার মূল্যে কোনও ক্রেতা জোগাড় করতে ব্যর্থ হন। ফলে চুক্তিটি অকার্যকর হয়ে পড়ে।

এরপর ২০১২ সালের ১৬ আগস্ট জমিটির ইজারাগ্রহীতা আমেরিকান দূতাবাসের সঙ্গে জমিটির মালিকরা একটি বায়না চুক্তি সম্পাদন করেন এবং শেষ পর্যন্ত ২০১৩ সালের ৩ জুলাই বিক্রি সংক্রান্ত দলিল সম্পাদন করেন। এরপর শাহিনকে চেকগুলো ফেরত দিতে বলেন।

এদিকে আবুল কাহের শাহিন ওই পরবর্তী তারিখ দেওয়া চারটি চেক ফেরত না দিয়ে নিজে অবৈধভাবে লাভবান হওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি চেক চারটি নগদায়নের জন্য ব্যাংকে উপস্থাপন করেন। ইতোমধ্যে ইমরান রশিদ চৌধুরী ওই চেকগুলো সম্পর্কে ব্যাংকে ‘স্টপ পেমেন্ট ইন্সস্ট্রাকশন’ দিয়ে রাখলে সেগুলো যথারীতি ডিজঅনার হয়। এরপর শাহিন সিলেটের আদালতে চেক ডিজঅনারের মামলা করে তার পক্ষে রায় পান।

ইমরান রশিদ চৌধুরী ওই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট বিভাগে ফৌজদারি আপিল দায়ের করেন। এর পর হাইকোর্ট বিভাগ শুনানি শেষে আপিল মঞ্জুর করে ২০১৬ সালের ৩১ আগস্ট রায় প্রদানের মাধ্যমে ইমরান রশিদ চৌধুরীকে মামলার অভিযোগ থেকে খালাস দেন। পরে আবুল কাহের শাহিন ওই রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল দায়ের করেন। সে আপিলের ওপর প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের শুনানি শেষে চলতি বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগ রায় দেন। ওই রায়ে হাইকোর্টের রায় বহাল রাখা হয়।

এ মামলায় আদালতে বাদী পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট মনসুরুল হক চৌধুরী এবং ব্যারিস্টার চৌধুরী মুর্শেদ কামাল টিপু। অন্যপক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এবং সিনিয়র অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




All Rights Reserved: Duronto Sotter Sondhane (Dusos)
Design by Raytahost.com