January 19, 2021

শরণখোলায় ক্রেতা সেজে বাঘের চামড়া ও পাচারকারীকে আটক করল যৌথ বাহিনী

নইন আবু নাঈম,বাগেরহাট সংবাদদাতাঃ ক্রেতা সেজে বাঘের চামড়াসহ পাচারকারীকে আটক করেছে যৌথ বাহিনী। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে র‌্যাব ও বনবিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা সদরের রাজৈর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন জলিলের ব্রিজ এলাকা থেকে একটি চামড়াসহ আটক করে গাউস ফকির (৫২) নামে ওই পাচারকারীকে।

উদ্ধার হওয়া বাঘের চামড়া ও পাচারকারীকে রাতেই র‌্যাব-৮ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আটক গাউস ফকির উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের সুন্দরবন সংলগ্ন সোনাতলা গ্রামের রশিদ ফকিরের ছেলে।

বনবিভাগ জানায়, পূর্ব সুন্দবনের শরণখোলা রেঞ্জের বনরক্ষীরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চারদিন ধরে পাচারকারীকে অনুসরণ করতে থাকে। একপর্যায়ে সোর্সের মাধ্যমে চামড়াটি ১৩ লাখ টাকায় কেনার চুক্তি করে ফাঁদ পাতে বনরক্ষীরা। সেই ফাঁদে পা দেয় বাঘ শিকারী গাউস ফকির। চুক্তি অনুযায়ী চামড়া নিয়ে নির্ধারিত স্থানে যাওয়ার কথা জানালে শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তার বিষয়টি র‌্যাবকে অবহিত করেন।
র‌্যাব-৮ ও বনরক্ষীদের একটি দল আগে থেকে রাজৈর এলাকায় অবস্থান নেয়। তখন রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. জয়নাল আবেদীন ১৩ লাখ টাকা নিয়ে ওই এলাকায় উপস্থিত হওয়ার কথা জানালে পাচারকারী গাউস ফকির বাঘের চামড়া নিয়ে সেখানে হাজির হয়। এসময় তাকে চামড়াসহ হাতেনাতে আকট করতে সক্ষম হয় যৌথ বাহিনী।

পূর্ব বনবিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বনসংরক্ষক (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে বুধবার (২০ জানুয়ারী) সকালে র‌্যাব ও বনবিভাগ যৌথ প্রেস ব্রিফিং করে বিস্তারিত জানানো হবে। এর চেয়ে বেশি কিছু বলা সম্ভম নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *