March 14, 2020

বহুল আলোচিত পাপিয়া হুন্ডির মাধ্যমে অর্থ পাচার করতেন বিদেশে।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বহুল আলোচিত যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নুর পাপিয়া ও সুমন চৌধুরী দম্পতি বিদেশে বেশির ভাগ অর্থ পাচার করতেন হুন্ডির মাধ্যমে। তারা ব্যাংকের মাধ্যমে খুবই সামান্য পরিমাণ টাকা পাঠিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সিআইডি।

পাপিয়া দম্পতির অর্থ পাচার মামলার বিষয়টি অনুসন্ধান করছে ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (সিআইডি)। অনুসন্ধান করতে গিয়ে সিআইডি অর্থ পাচারের বিষয়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছেন, যা যাচাই-বাছাইয়ের কাজ চলছে।

এ ব্যাপারে সিআইডির ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘পাপিয়া দম্পতির অর্থ পাচার মামলার বিষয়ে অনুসন্ধান চলমান রয়েছে। নিবিড়ভাবে তদন্তকাজ চলছে। বেশ কিছু আলামত হাতে এসেছে। তাতে এখন পর্যন্ত বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছি আমরা। সেগুলো যাচাই-বাছাই চলছে।’ ডিআইজি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত পাপিয়ার সঙ্গে যাদের নাম এসেছে, তাতে তার স্বামী সুমনের সম্পৃক্ততা রয়েছে। আরো কারা রয়েছে সে বিষয়ে তদন্ত শেষে বলা যাবে।

উল্লেখ্য, গত ২২ ফেব্রুয়ারি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জাল মুদ্রা, ইয়াবা ও নগদ ২ লাখ টাকাসহ পাপিয়া, তার স্বামী সুমন চৌধুরী, সহযোগী সাব্বির ও শেখ তায়্যিবাকে গ্রেফতার করেছেন ৱ্যাব। এরপর তাদের নিয়ে অভিযান চালিয়ে রাজধানীর ফার্মগেটের দুই ফ্ল্যাট থেকে নগদ ৫৮ লাখ টাকা, বৈদেশিক মুদ্রা, ৭ রাউন্ড গুলিসহ বিদেশি পিস্তল ও মদ উদ্ধার করেন। পাপিয়াদের নামে বিমানবন্দর থানায় একটি ও শেরেবাংলা নগর থানায় দুটি মামলা করা হয়েছে। তিন মামলায় ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়াসহ চার জনকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পায় র্যাব। এ কারণে তারা এখন ৱ্যাব -১-এর হেফাজতে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *