June 29, 2020

বীর মুক্তিযোদ্ধা গেদু চাচা খ্যাত সাংবাদিক মোজ্জামেল হক ইন্তেকাল করেছেন।

আশি-নব্বইয়ের দশকে ‘গেদু চাচা’ খ্যাত সিনিয়র সাংবাদিক, জাতীয় প্রেসকাবের স্থায়ী সদস্য ও ‘আজকের সূর্যোদয়’ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা খোন্দকার মোজাম্মেল হক আর নেই। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর এএমজেড হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২৯জুন) বিকাল ৪টার দিকে ইন্তেকাল (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী, ভক্ত ও সহকর্মী রেখে গেছেন। ১৯৫২ সালের ২৬ নভেম্বর ফেনী জেলার ছাগলনাইয়ায় জন্মগ্রহণ করেন প্রথিতযশা গুণী সাংবাদিক।

সাবেক ছাত্রলীগ এই নেতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার মোজাম্মেল হক এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক শোকবার্তায় শেখ হাসিনা সাংবাদিকতায় মোজাম্মেল হকের অবদানের কথা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শ্বাসকষ্ট নিয়ে শনিবার রাতে হাসপাতালে ভর্তি হন খোন্দকার মোজাম্মেল হক। এছাড়াও তিনি দীর্ঘদিন ডায়াবেটিসে ভুগছিলেন। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাসার কাছে মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা শেষে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে ছাগলনাইয়ায় গ্রামের বাড়িতে। সেখানে বিকাল পাঁচটায় দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

খোন্দকার মোজাম্মেল হক কয়েক দশক ধরে গেদু চাচা নামে কলাম লিখতেন। আশির দশকে সাপ্তাহিক সুগন্ধা ও পরে নব্বইয়ের দশকে আজকের সূর্যোদয়ের সম্পাদক ছিলেন। ষাটের দশকে বৃহত্তর নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তখন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে ছাত্রদের নিয়ে গণআন্দোলন গড়ে তোলেন। স্বাধীনতাযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ঢাকাস্থ চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ছিলেন তিনি।

জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি সাইফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন এক বিবৃতিতে খোন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শোকবার্তায় তারা বলেন, খোন্দকার মোজাম্মেল হকের অকাল মৃত্যুতে সাংবাদিক সমাজের অপূরণীয় ক্ষতি হল। একজন সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তিনি আমৃত্যু মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে অগ্রগামী সৈনিক হিসেবে ভূমিকা রেখেছেন। তারা মরহুমের শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *