October 21, 2020

খুলনায় র‌্যাবের হাতে প্রতারক চক্রের মূল হোতা এসে এম সাইদুর রহমান সোহেল গ্রেফতার।

কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ RAB-6 খুলনা এর অভিযানে বাংলাদেশর সরকারি বিভিন্ন পদে চাকরি দেওয়ার প্রতারক চক্রের মূল হোতা এস এম সাইদুল রহমান সোহেল আটক।

খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেজে সরকারের বিভিন্ন বিভাগের প্রজ্ঞাপন ও নিয়োগপত্র দিয়ে ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এস এম সাইদুর রহমান নামে এক প্রতারক আটক করেছে RAB-6। পাইকগাছায় ৩৭ তম বিসিএস ক্যাডার এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেজে সরকারের বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন বিভাগের প্রজ্ঞাপন ও নিয়োগপত্র দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে ২০ জন ব্যক্তির নিকট থেকে ১ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সাইদুর রহমান অরণ্য ওরফে কাজী সোহেল রানা নামে এক প্রতারককে আটক করেছে RAB – 6খুলনা।

রবিবার রাতে অভিযান চালিয়ে বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট এর নোয়াপাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করে। সোমবার সকালে পাইকগাছা থানায় হস্তান্তর করেছে RAB-6।

এ ঘটনায় উপজেলার বাশাখালী গ্রামের মোঃ নুরুজ্জামান গাজী ( সাগর ) এর কাছথেকে ৩৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা নেয়।

মামলার বরাত দিয়ে সাগরের সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গড়ইখালী ইউনিয়ন বাশাখালী গ্রামের হাজী মোঃ শওকত গাজীর ছেলে মোঃ নুরুজ্জামান গাজি (সাগর) বাদী হয়ে ৩ ব্যক্তি সহ আরো অজ্ঞাত ৭/৮ জন রুপসা থানার তালিমপুর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান ছেলে এস এম সাইদুর রহমান অরন্য ওরফে কাজী সোহেল রানার নামে পাইকগাছা থানায় মামলা দায়ের করে।

মামলার বিবরণে আরো জানা যায়। সে কখনো ৩৭ তম বিসিএস ক্যাডার, বা এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, কখনো উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, কখনো সচিবালয়ের উপরোক্ত কর্মকর্তা, কখনো বাংলাদেশ পুলিশের উপরোক্ত কর্মকর্তা সহ নানা উপরস্থ কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে চলাফেরা করত। এবং নিজেকে বাংলাদেশের একজন ভিআইপি হিসাবে পরিচয় দিতো তার প্রাইভেটকার গাড়িতে বঙ্গভবনের স্টিকার লাগিয়ে চলতো। কিছুদিন আগে বাশাখালী থেকে ৩৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও মোঃনুরুজ্জামান ( সাগর ) আত্মীয়র বাড়ি ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা জেলার হিরণপুর সহ আশপাশের এলাকা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় এই প্রতারক। এছাড়া গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট, যশোর, খুলনা, নোয়াপাড়া, ইত্যাদি জায়গা হইতে আসামি বিভিন্ন সময়ে চাকরি দেওয়ার নাম করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই প্রতারক।

আনুমানিক যার পরিমাম ১০/ ১২ কোটি টাকা। প্রতারক এস এম সাইদুর রহমান অরণ্য ওরফে কাজী সোহেল রানা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.dpe.gov.bd.com জালিয়াতি করে নিজেই একটি www.dpeo.gov.bd.com ওয়েবসাইট খোলে, যেখানে ভুক্তভোগীদের দেখানো হতো সহকারী শিক্ষক পদে বিশেষ বিবেচনায় উত্তীর্ণ করা হয়েছে। প্রতারক এস এম সাইদুর রহমান সরকারি দপ্তরের বিভিন্ন উপরোক্ত কর্মকর্তাদের সিল এবং সই জালিয়াতি করে ভুক্তভোগীদের ভুয়া এডমিট কার্ড, ভাইবা কার্ড প্রজ্ঞাপন নামা নিয়োগপত্র প্রদান করে।

আসামি এস এম সাইদুল রহমান অরন্য ওরফে কাজী সোহেল রানা কাছে ভুক্তভোগীরা টাকা ভোটার আইডি কার্ড ও শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সার্টিফিকেট ফেরত চাইলে সাইদুর রহমান হামলা মামলার ভয় -ভিতী দেখায় এবং তার কাছে থাকা অস্ত্র দ্বারা খুন ও জখম করার হুমকি প্রদান করে। আসামির নামে একাধিক মামলা হয়েছে। নেত্রকোনা জেলা পূর্বধুলা থানা ও নেত্রকোনা সদর মডেল থানা সহ গোপালগঞ্জ কোট আদালতে মামলা হয়েছে। তারই সূত্র ধরে RAB ৬ খুলনা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করে।

আটককৃতকে সোমবার সকালে পাইকগাছা থানা হস্তান্তর করে। এর পরপরই ভুক্তভোগীরা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে, এই প্রতারক এস এম সাইদুর রহমান ওরফে কাজী সোহেল রানা এর সর্বোচ্চ শাস্তি এবং সকল ভুক্তভুগীদের অর্থ সহ শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সার্টিফিকেট পাওয়ার বিষয়ে হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ বিষয়ে পাইকগাছা থানার ওসি এজাজ শফি জানান তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পাইকগাছা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *