October 25, 2019

ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে আজারবাইজান পৌঁছেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জোট নিরপেক্ষ আন্দোলন-ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে আজারবাইজান পৌঁছেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) স্থানীয় সময় রাত ৯টা ১০ মিনিটের (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ১০ মিনিট) দিকে তিনি বাকুর হায়দার আলিয়েভ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। এসময় সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে অভিনন্দন জানান আজারবাইজানের ডেপুটি প্রাইম মিনিস্টার আলী আহমাদাব।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) বিকেল ৪টার দিকে সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে (বিজি-২০৩১) আজারবাইজানের রাজধানী বাকুর উদ্দেশে রওনা হন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মজিবুর রহমান, এফবিসিসিআই’র সাবেক সভাপতি মো. সফিউল ইসলাম প্রমুখ।

হায়দার আলিয়েভ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে হোটেল হিলটন বাকুতে যাবেন শেখ হাসিনা। আজারবাইজান সফরে এ হোটেলেই থাকবেন তিনি।

শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) ১৮ ন্যাম সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর দুপুরে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন। সন্ধ্যায় আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট হায়দার আলিয়েভের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন শেখ হাসিনা। আজ সম্মেলনের প্রথম দিনে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কাটাবেন ব্যস্ত দিন। সম্মেলনের ফাকে সাক্ষাৎ করবেন বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে।

শনিবার (২৬ অক্টোবর) ন্যাম সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। ওই দিন সন্ধ্যায় আজারবাইজানে বাংলাদেশের দূত হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের আমন্ত্রণে নৈজভোজে অংশ নেবেন তিনি।

১২০টি উন্নয়নশীল দেশের জোট ন্যাম জাতিসংঘের পর সবচেয়ে বড় ফোরাম হিসেবে পরিচিত। আগামী ২৫ ও ২৬ অক্টোবর বাকুর কংগ্রেস সেন্টারে ৫৮ বছরের পুরনো এ জোটের ১৮তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সদস্যভুক্ত দেশ ছাড়াও পর্যবেক্ষক দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান, প্রতিনিধি, বিভিন্ন সংস্থার প্রধান ও প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে অংশ নিবেন।

আগামী রোববার (২৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় দেশে ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *