June 24, 2020

মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন সেনাবাহিনীর ১০ সদস্যদের চিকিৎসক দল।

মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সফল চিকিৎসা শেষে সেনাবাহিনীর ১০ সদস্যদের চিকিৎসক দল ২৩জুন মঙ্গলবার দেশে ফিরেছেন। সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল কোরের লে. কর্নেল ডা. ইমরুল কায়েস চৌধুরীর নেতৃত্বে ১০ সদস্যের মেডিক্যাল টিম চিকিৎসা সরঞ্জাম নিয়ে গত ২০ এপ্রিল মালদ্বীপ যান।

মালদ্বীপে বর্তমানে প্রায় ১ লাখ প্রবাসী শ্রমিক অবস্থান করছেন। করোনা সংক্রমণে অন্যান্য দেশের মতই মালদ্বীপে প্রবাসীরা করোনায় আক্রান্ত হন। মালদ্বীপে ২ হাজার ২৩৮ জন করোনা আক্রান্ত হন। এদের মধ্যে ১ হাজার ১৮ জনই বাংলাদেশি প্রবাসী। আক্রান্তদের মধ্যে ৩ জন বাংলাদেশি মারা যায়। করোনা আক্রান্ত প্রবাসীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য গত ২০ এপ্রিল সেনাবাহিনীর একটি মেডিক্যাল টিম মালদ্বীপে যায়। মালদ্বীপের হলুমালু শহরে পাশাপাশি অবস্থিত দুইটি হাসপাতাল ও আইসোলেশন সেন্টারের দায়িত্ব নেয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল টিম। দুইটি সেন্টারে করোনা আক্রান্ত ৬০০ থেকে ৬৫০ জন বাংলাদেশি প্রবাসী ভর্তি ছিলেন। সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল টিমটি মালদ্বীপে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার পর কোনো বাংলাদেশির মৃত্যু ঘটেনি। সকলেই সুস্থ হয়ে যান। দশ সদস্যেও মেডিক্যাল টিমে তিন জন চিকিৎসক ও ৭ জন স্বাস্থ্য কর্মী গত ২০ এপ্রিল থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত ৬৫ দিন টানা চিকিৎসা সেবা দিয়ে গত মঙ্গলবার দেশে ফিরেন।

সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল টিমের প্রধান লে.কর্নেল ডা. ইমরুল কায়েস চৌধুরী বলেন, ‘মালদ্বীপে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে শতকরা ৫৪ ভাগ ছিল বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিক। এ কারণে সরকারের নির্দেশে সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল টিম সেখানে গিয়ে তাদের চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে তোলেন। এখন প্রবাসীদের মধ্যে করোনা সংক্রমণের হার অনেক কমে যাওয়ায় মেডিক্যাল টিমটি দেশে ফিরে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *