January 30, 2023, 6:02 pm

তথ্য ও সংবাদ শিরোনামঃ
পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ১২ বছরেও সংস্কার হয়নি ব্রিজ, ঝুঁকি নিয়ে হাজারো মানুষের পারাপার মহাসড়কে ডাকাতির অভিযোগে গ্রেপ্তার ১ ময়মনসিংহের ভালুকায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নারায়ণগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ধনকুবের আল জয়নালের বিরুদ্ধে দুদক এ অভিযোগ। ভালুকায় ইয়াবা সহ আটক-১ ভালুকায় বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের অপরাধ থেকে ‘ক্ষমা পেলেন’ কাজী অলিদ ইসলাম আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন ও সাফল্য নিয়ে প্রেস কনফারেন্স করলেন, জাকারিয়া টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে এসিল্যান্ডের উপর অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের হামলা আহত-২ বাসাইলের সাবেক ইউএনও’র বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা বিল-২০২৩ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। ময়মনসিংহের ভালুকায় ঔষধের দোকানে অভিযান, জরিমানা ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যানের অত্যাচারের প্রতিবাদে শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন ভালুকায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের মুল আসামি গ্রেফতার ভালুকায় কম্বল বিতরণ করলেন এমপি মনি ভালুকায় দুই প্রতারক গ্রেফতার রাজধানীর মতিঝিলে ক্যাশলেস সেবা চালু করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ভালুকায় জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় ইরানে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার। ভালুকায় ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণ: ধর্ষক আটক ভালুকায় বীরমুক্তিযোদ্ধার বাড়ীর রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় দূস্কৃতিকারী ভালুকায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত ইতালির মোস্ট ওয়ান্টেড মাফিয়া প্রধান গ্রেফতার অনলাইন পত্রিকার কার্যক্রম মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। -ড. হাসান মাহমুদ মুক্তিযুদ্ধের আলোকে দেশ চললে, অশুভ শক্তিরা মাঝেমধ্যে মাথাচাড়া দিলেও তাদের বিনাশ হবেই। দেশ এগিয়ে যাবে। বাসাইলে পুলিশী বাধায় পন্ড বিএনপি’র বিক্ষোভ, দলীয় কার্যালয়ের সামনেই প্রতিবাদ সমাবেশ দীর্ঘ পাঁচ বছরের গবেষণায় রাবি অধ্যাপকের নতুন জাতের কলার উদ্ভাবন বেনাপোলে অস্ত্র মামলার আসামী নুরনবী পোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ইয়াবা সহ গ্রেফতার। তিনশতাধীক পরিবারের মাঝে ২০ ইসিবির শীতবস্ত্র বিতরণ। পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচলের নির্দেশনা চেয়ে করা রিট খারিজ।

দীর্ঘ পাঁচ বছরের গবেষণায় রাবি অধ্যাপকের নতুন জাতের কলার উদ্ভাবন

দীর্ঘ পাঁচ বছরের গবেষণায় রাবি অধ্যাপকের নতুন জাতের কলার উদ্ভাবন

দুসস ডেস্কঃ পাকা কলার প্রতি লোভ নেই, বাংলাদেশে এমন মানুষের সংখ্যা বিরল। তবে দিন দিন দুষ্প্রাপ্য হয়ে উঠছে কলা। সেই সঙ্গে বাড়ছে কলাম দাম। এমন সময়ে ফুল থেকে টিস্যু কালচার পদ্ধতি ব্যবহার করে পাঁচ ধরনের উন্নত জাতের কলা উদ্ভাবন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন। দীর্ঘ পাঁচ বছরের গবেষণায় এই সফলতা পেয়েছেন বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, উদ্ভাবিত নতুন জাতের কলা অধিক পুষ্টিগুণ সম্পন্ন। উচ্চ ফলনশীল ও কম সময়ে ফলন পাওয়া যায়। ইতিমধ্যে দেশজুড়ে রাবির এই গবেষকের চারা নিয়ে চাষাবাদ শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট চাষিরা বলছেন, প্রচলিত সাধারণ কলার চেয়ে নতুন জাতের কলা চাষে ৩০-৪০% বেশি লাভ পাওয়া যায়।

এছাড়া টিস্যু কালচার চারা লাগালে সনাতন পদ্ধতির চেয়ে ২-৩ মাস আগে কলা সংগ্রহ করা যায়। টিস্যু কালচার কলা দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা পূরণ এবং রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সম্ভব।

অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘২০১৭ সালে টিস্যু কালচারের মাধ্যমে কলার চারা উদ্ভাবনের জন্য একটি প্রকল্প হাতে নেন। গবেষণার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও রাবি প্রশাসন তাদের ৪ লাখ টাকা দেয়। তারা কলার স্যুট টিপ বা ফুলের টিস্যু নিয়ে প্রথমে জীবাণুমুক্ত করেন। পরে ল্যামিনার ফ্লো-র ভেতর নিয়ে টিস্যুকে কাচের পাত্রে নির্দিষ্ট তাপমাত্রা ও নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে উদ্ভিদের বিভিন্ন রকমের হরমোন ও প্রয়োজনীয় কৃত্রিম খাবার ব্যবহার করে ৫-৬ মাস ধরে মাইক্রোস্যুট তৈরি করেন। পরে ওই মাইক্রোস্যুটগুলোতে হরমোন ব্যবহার করে শিকড় তৈরি করেন। এরপর ল্যাব থেকে বের করে পলি হাউজের ভিতর সিডলিং ট্রে-তে কোকোপিট ভরে তার উপর বসানো হয়। এর এক মাস পরে চারাগুলোকে মাটির পলিব্যাগে স্থানান্তর করা হয়। পলি হাউজের ভিতরে মাটির ব্যাগে চারাগুলোকে ২-৩ মাস ধরে বিশেষ পদ্ধতিতে বাইরের আবহাওয়ার সঙ্গে খাপ খাওয়ানো হয়। একপর্যায়ে মাঠে রোপনের উপযুক্ত হলে সেগুলো চাষিদের নিকট হস্তান্তর করা হয়। অর্থাৎ, ইন-ভিট্রো মাইক্রোপ্রোপাগেশন পদ্ধতিতে বিভিন্ন জাতের কলার টিস্যু কালচার চারা উৎপাদনে সাফল্য অর্জন করেছেন তারা।

জানা যায়, পৃথিবীর গ্রীষ্ম ও উপ-গ্রীষ্মমণ্ডলীয় দেশে কমবেশি কলার চাষ হয়। খাদ্য শস্যের মধ্যে উৎপাদনের দিক থেকে বিশ্বে কলার অবস্থান চতুর্থ। দক্ষিণ আমেরিকার দেশসহ ভারত ও ফিলিপিন শীতপ্রধান দেশে কলা রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে। কিন্তু বাংলাদেশের কলা ফেটে যাওয়া, কলার গায়ে কালো দাগ পড়া, কলার ইউনিফরমিটি না থাকা, কলা এক ব্যাসের না হওয়ায় একসঙ্গে না পাকা, কলাতে মাত্রারিক্ত কীটনাশকের উপস্থিতির কারণে রপ্তানির শর্তপূরণ করতে পারে না। তবে রাবিতে উদ্ভাবিত টিস্যু কালচার পদ্ধতির কলা ল্যাবরেটরীতে তৈরি বলে ১০০% রোগ-জীবাণু মুক্ত হয়। কীটনাশক কম ব্যবহার হয়।

অধ্যাপক আনোয়ার বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য- অল্প খরচে দেশের ১৮ কোটি মানুষকে স্বল্প মূল্যে অধিক পুষ্টিগুণ সম্পন্ন নির্ভেজাল কলা খাওয়ানো। এ জন্য সারা দেশের কৃষকদের পাঁচ জাতের চারা স্বল্পমূল্যে-বিনামূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে। এই সময়ের মধ্যে কৃষকদের কাছ থেকে অভাবনীয় সাড়া মিলেছে। বেসরকারি উদ্যোগে দেশজুড়ে টিস্যু কালচার ল্যাবে চারা উৎপাদন করা সম্ভব। তবে টিস্যু কালচার চারা তৈরির পদ্ধতিসমূহ এখনো প্যাটেন্ট হয়নি।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোজদার হোসেন বলেন, ‘টিস্যু কালচারের মাধ্যমে রাবির গবেষকদের উদ্ভাবিত উন্নত জাতের কলার চারা ইতিমধ্যেই সারাদেশে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। রাজশাহীর বিভিন্ন এলাকায় এই কলার চাষ হচ্ছে। এই কলার প্রধান বৈশিষ্ট্য কলার মোচা একসঙ্গে বের হওয়ায় উচ্চ ফলনশীল ও স্বাভাবিকের চেয়ে পরিপক্ব হতে সময় কম লাগে। সারা বছর এই কলার চারা রোপন করা যায়। সারাদেশে টিস্যু কালচার চারা সরবরাহ সম্ভব হলে দেশে কলা চাষে বিপ্লব ঘটবে।

আমাদের প্রকাশিত তথ্য ও সংবাদ আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




All Rights Reserved: Duronto Sotter Sondhane (Dusos)

Design by Raytahost.com